রাজধানী ঢাকার জাতীয় হৃদ্‌রোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে রোগীদেরকে জীবন রক্ষাকারী একটি ইনজেকশন এখন বিনা মূল্যে দেওয়া হচ্ছে। হার্ট অ্যাটাকের পর ধমনিতে জমাট বেঁধে যাওয়া রক্ত গলিয়ে দেওয়ার জন্য ইনজেকশনটি দেওয়া হয়। হার্ট অ্যাটাক করে কেউ ওই হাসপাতালের জরুরি বিভাগে গেলে তিনি বিনা মূল্যে এই ইনজেকশন পাবেন। বাইরের ওষুধের দোকানে এর দাম পাঁচ-ছয় হাজার টাকা।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, হাসপাতালটির নতুন পরিচালক রোগীদের বিনা মূল্যে এই ইনজেকশন দেওয়ার আদেশ জারি করে বলেছেন, কোনো নার্স বা চিকিৎসক এই ইনজেকশন রোগীদের দিয়ে বাইরে থেকে কিনে আনালে বা কেনার পরামর্শ দিলে তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

একজন চিকিৎসক বলেন, হার্ট অ্যাটাকের পর রক্ত জমাট বেঁধে যায়। জীবন রক্ষাকারী এই ইনজেকশন দেওয়ার পর জমাট বাঁধা রক্ত তরল হয়ে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক হয় এবং হৃদ্‌যন্ত্র সচল হয়। যত দ্রুত শিরায় এই ইনজেকশন দেওয়া যাবে, হার্টের পেশি তত ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা পাবে।

হাসপাতালটির পরিচালক অধ্যাপক আফজালুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, জরুরি পরিস্থিতিতে এ ইনজেকশন মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্তরা কিনতে পারলেও গরিব-অসহায় রোগীরা তা পারেন না। মূলত গরিব রোগীর কথা বিবেচনা করে হাসপাতালের নিজস্ব বরাদ্দ থেকে সম্প্রতি এই ইনজেকশন কেনা হয়েছে।

অধ্যাপক আফজালুর রহমান আরও বলেন, গত জানুয়ারিতে পরিচালক হিসেবে তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর এক সপ্তাহের মধ্যেই জরুরি বিভাগে ইকোকার্ডিওগ্রাম যন্ত্র স্থাপন করা হয়েছে। এ ছাড়া ইসিজি, কার্ডিয়াক মনিটর, ডি-ফেব্রিলেটর যন্ত্র বসিয়ে জরুরি বিভাগকে একটি ছোট সিসিইউতে (করোনারি কেয়ার ইউনিট) রূপান্তর করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here